ভারতকে যুদ্ধের দিকে ঠেলে দিচ্ছে মোদি প্রশাসনের শীর্ষ কর্মকর্তারা: চীন

ভারতকে যুদ্ধের দিকে ঠেলে দিচ্ছে মোদি প্রশাসনের শীর্ষ কর্মকর্তারা: চীন

চীন-ভারত সীমান্তে উত্তে’জনা প্রশমনে কাজ করে যাচ্ছে বেইজিং। দেশটির বিশেষজ্ঞ চেং শিজহং-এর মতে, সীমান্ত এলাকায় যে কোনো ধরনের উস্কানি এবং সহিংস আচরন কখনোই প্রশ্রয় দেয় না চীন। ভারতীয় পক্ষ থেকে আশানুরুপ সাড়া পাওয়া যাচ্ছে না বলে অভিযোগ বেইজিংয়ের।

চীন জানায়, গত ৮ নভেম্বর চীনের জাতীয় প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় চীন-ভারত কোর কমান্ডার পর্যায়ের অষ্টম রাউন্ড বৈঠক সম্পর্কে একটি ইতিবাচক বার্তা পাঠিয়ে জানায় যে উভয় পক্ষ দুই দেশের নেতাদের গুরুত্বপূর্ণ সমঝোতা বাস্তবায়নে, রণাঙ্গনের সৈন্যদের সংযম ও ভুল বোঝাবুঝি অবসানে আন্তরিকভাবে আগ্রহী।

উভয় পক্ষ সীমান্ত এলাকায় শান্তি ও স্থিতিশীলতা রক্ষা করতে সামরিক ও কূটনৈতিক চ্যানেলের মাধ্যমে সংলাপ ও যোগাযোগ রক্ষা করতে একমত হয়, বিবাদমান ইস্যুগুলো নিষ্পত্তিতে উদ্যোগ নেয়। তবে ভারতীয় পক্ষ থেকে আশানুরুপ সাড়া পাওয়া যাচ্ছে না বলে অভিযোগ বেইজিং-এর। সেই সঙ্গে ভারতীয় গণমাধ্যম নেতিবাচক তথ্য অব্যাহতভাবে প্রকাশ করেছে। এতে দু’দেশের সীমান্তে পরিকল্পিতভাবে উত্তেজনা বাড়াচ্ছে বলে দাবি চীনের।

চীনা বিশ্লেষক জানান, দু’দেশের শীর্ষ পর্যায়ে যখন আলোচনা চলছে তখন ফ্রান্স থেকে রাফাল জঙ্গি বিমান এনে এই অঞ্চলে অস্থিরতা আরো বাড়িয়ে তুলছে মোদি প্রশাসন। চীন নেপাল, বাংলাদেশ ও পাকিস্তানসহ দক্ষিণ এশিয়ার বন্ধুত্বপূর্ণ দেশগুলোকে তাদের জাতীয় সার্বভৌমত্ব ও ভূখ’ণ্ডগত অখ’ণ্ডতা সুরক্ষায় দৃঢ়ভাবে সমর্থন করে বলে মত ওই বিশেষজ্ঞের।