আমি অনেক কাজ হারিয়েছি , সেই কাজ অন্যরা যৌ’নতার বিনিময়ে পেয়েছে !

আমি অনেক কাজ হারিয়েছি , সেই কাজ অন্যরা যৌ’নতার বিনিময়ে পেয়েছে !

যৌ’নতা কাজ পাওয়ার একটা উপায় বলে মন্তব্য করেছেন বলিউড অভিনেত্রী ফাতিমা সানা শেখ। তিনি বলেন, আমি অনেক কাজ হারিয়েছে, সেই কাজ অন্যরা পেয়েছেন, সেটা যেকোনো কারণেই হোক। তবে শুধু ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রি নয়, এটা অন্যান্য ইন্ডাস্ট্রিতেও একইভাবে রয়েছে। আর এটা খুবই সত্যি কথা।

বলিউডে যৌ’নতার বিনিময়ে কাজ পাওয়ার বিষয়ে ভারতীয় সংবাদমাধ্যমকে দেয়া সাক্ষাৎকারে তিনি বিষয়টি খোলসা করেন। সানা শেখ আরো বলেছেন, ৩ বছর বয়সে আমাকে যৌ’ন হেনস্থার শিকার হতে হয়েছে। তারপর থেকে লড়াই চলছে।

দঙ্গল অভিনেত্রী বলেন, আমাকে অনেকে বলেছেন, তুমি দীপিকা, ঐশ্বরিয়াদের মতো সুন্দর না। তুমি কীভাবে নায়িকা হবে? সৌন্দর্যের মাপকাঠি হয়তো এটাই, আমি ওই তালিকার পড়ি না। তবে আমার মতো সাধারণ দেখতে মেয়েদের নিয়েও সিনেমা হচ্ছে। তাই আমারও সুযোগ রয়েছে।

আরো পড়ুন:ব্যাংক নোট সৌদির কিন্তু কেন ক্ষুব্ধ ভারত পাকিস্তান!

সৌদি আরবের কেন্দ্রীয় ব্যাংক একটি নতুন নোট ছেপেছে যার কারণে ভারত ও পাকিস্তান খুবই ক্ষুব্ধ হয়েছে। ভারত ও পাকিস্তান থেকে কাশ্মীরকে সম্পূর্ণভাবে স্বাধীন রাষ্ট্র হিসেবে দেখানো হয়েছে ওই নোটে।

শিল্পোন্নত দেশগুলোর সংগঠন জি-২০ শীর্ষ সম্মেলন উপলক্ষে সৌদি আরবের কেন্দ্রীয় ব্যাংক ওই নোট ছেপেছে এবং গত সপ্তাহে তা অবমুক্ত করা হয়। জি-২০ শীর্ষ সম্মেলন এবার সৌদি আরবে অনুষ্ঠিত হচ্ছে। সৌদি আরবের সভাপতিকে স্মরণীয় করে রাখতে দেশটির অর্থ বিভাগ এই উদ্যোগ নিয়েছে।

নতুন নোটের একদিকে আছে রাজা সালমানের ছবি এবং জি-২০ সম্মেলনের লোগো আর অন্যদিকে বিশ্ব মানচিত্র রয়েছে। এই মানচিত্রে কাশ্মীরকে সম্পূর্ণভাবে স্বাধীন রাষ্ট্র হিসেবে তুলে ধরা হয়েছে। পাশাপাশি গিলগিট-বালতিস্তান ও আযাদ কাশ্মীরকে পাকিস্তান থেকে আলাদা করে দেখানো হয়েছে।

এ বিষয়ে ভারত সরকারের মুখপাত্র অনুরাগ শ্রীবাস্তব বলেন, সৌদি আরবের পক্ষ থেকে ছাপনো ব্যাংক নোট নিয়ে নয়াদিল্লি মারাত্মক উদ্বেগ প্রকাশ করেছে। এই উদ্বেগ জানানো হয়েছে ভারতে সৌদি দূতাবাস ও রিয়াদে ভারতীয় দূতাবাসের মাধ্যমে।

এদিকে, বিতর্কিত কাশ্মীর অঞ্চলকে পাকিস্তানের মানচিত্র থেকে মুছে দেওয়ার জন্য ইসলামাবাদের কর্মকর্তা দেশটির জন্য বড় রকমের অবজ্ঞা হিসেবে দেখছেন। সৌদি আরবকে পাকিস্তানের ঘনিষ্ঠ মিত্র হিসেবে বিবেচনা করা হয়।