স্ত্রীকে পেলেন অন্য পুরুষের সাথে হোটেলে ;অতঃপর ……..

স্ত্রীকে পেলেন অন্য পুরুষের সাথে হোটেলে ;অতঃপর ……..

স্ত্রীর প’রকীয়ার ব্যাপারে তিনি আগে থেকেই জানতেন। এ নিয়ে গোলমালও কম হয়নি। কিন্তু হাতেনাতে ধ’রতে পারেননি আগে। অবশেষে পারলেন। স্ত্রী ও তার প’রকীয়া প্রেমিককে রাস্তায় টে’নে এনে মা’রধ’র করেন ওই ব্যক্তি। এজন্য সঙ্গে ভাইকে নিয়ে গিয়েছিলেন তিনি।

জানা গেছে, তিন বছর আগে ভারতের পালওয়ালের অসহবতী গ্রামের বাসিন্দার সঙ্গে ওই নারীর বিয়ে হয়। নারীর বাপের বাড়ি ফিরোজপুরের কালান গ্রামে।বিয়ের আগে এক যুবকের সঙ্গে প্রেম ছিল তার।

বিয়ের পরেও ওই যুবকের সঙ্গে সম্পর্ক বজায় রাখেন তিনি। এ নিয়ে স্বামীর সঙ্গে ঝ’গড়া হতো। বেশ কয়েকবার প্রেমিকের সঙ্গে স্ত্রী ঘুরতে যাওয়ার কথা জেনেছেন ওই ব্যক্তি।একবার প্রেমিকের সঙ্গে বেশ কিছুদিনের জন্য পা’লিয়েও গিয়েছিলেন তার স্ত্রী।

কিন্তু দুই পরিবারের মধ্যে আলোচনার পর ফের এক সঙ্গে থাকতে শুরু করেন তারা।সম্প্রতি বাবার শারীরিক অসুস্থতার জন্য বাপের বাড়ি গিয়েছিলেন তিনি। শ্বশুরের শরীরের খোঁজ নেওয়ার জন্য শ্যালককে ফোন করে ওই ব্যক্তি জানতে পারেন, মায়ের জন্য বাজার করতে বল্লভগড় গেছেন তিনি। এরই মধ্যে ওই ব্যক্তির এক ভাইও ফোন করেন তাকে।

তিনি জানান, ভাবি কোনো এক ব্যক্তির সঙ্গে ঘুরছেন সেখানে। খবর পেয়ে সেখানে পৌঁছান ওই ব্যক্তি। ভাইকে নিয়ে খোঁজাখুঁজির পর প্রেমিকের সঙ্গে স্ত্রীকে ধ’রে ফেলেন। একটি হোটেলে তাদের থাকার খোঁজ পান। এরপর ভাইয়ের সহায়তায় রাস্তায় এনে মা’রধ’র করেন স্ত্রী ও তার প্রেমিককে।

এসব দেখে রাস্তায় লোকও দাঁড়িয়ে গিয়েছিল। পরে পুলিশ এসে তাদের উদ্ধার করে নিয়ে যায়। অ’ভিযোগের ভিত্তিতে ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে। সূত্র : ইন্ডিয়া টুডে।