বন্ধু দেশ রাশিয়াকে কড়া হুঁশিয়ারি তুরস্কের!

বন্ধু দেশ রাশিয়াকে কড়া হুঁশিয়ারি তুরস্কের!

আজারজাইজান ও আ’র্মেনি’য়ার মধ্যে টানা প্রায় দুই সপ্তাহের যু’দ্ধের পর চলতি সপ্তাহের শনিবার যু’দ্ধবিরতি ঘোষণা করা হয়েছে। কিন্তু এখনো পর্যন্ত তা মানেনি কোনো দেশই। রোববারের পর সোমবারও থামেনি না’গার্নো-কা’রাবাখ নিয়ে আজারবাইজান ও আ’র্মেনি’য়ার যু’দ্ধ। প্রতিদিনের মতো সোমবারও দুই দেশ যু’দ্ধবিরতি লঙ্ঘ’নের জন্য অপরের দিকে আ’ঙুল তুলেছে।

শনিবার মস্কোয় আ’জারবাইজান এবং আ’র্মেনি’য়া একটি সিদ্ধান্তে পৌঁছেছিল। আপাতত যু’দ্ধবিরতির সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছিল। একই সঙ্গে দুই দেশই আটক যু’দ্ধাপরা’ধীদের হ’স্তান্তর করবে বলে প্রস্তাব গ্রহণ করা হয়েছিল। কিন্তু এখনো পর্যন্ত বাস্তবে তার প্রভাব দেখা যায়নি। আর এর মধ্যেই আ’র্মেনি’য়াকে নিয়ে তারই মিত্রদেশ রাশিয়াকে কড়া বার্তা দিয়েছে তুরস্ক।

শান্তি চাইলে আ’র্মেনি’য়াকে অবশ্যই আজারবাইজানের জমি ছেড়ে দিতে হবে বলে সাফ জানিয়ে দিয়েছে আ’ঙ্কারা। সোমবার রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রী সার্গেই শোইগু’র সাথে টেলিফোনে কথা বলেন তুরস্কের প্রতিরক্ষা মন্ত্রী হুলুসি আকার। সেখানে তিনি রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রীকে বলেন, আর্মেনিয়াকে এখনই আজারবাইজানের ভূমি ছেড়ে চলে যেতে হবে এবং বেসামরিক মানুষ-জনের উপর আ’ক্রম’ণ বন্ধ করতে হবে।

তুরস্কের প্রতিরক্ষা মন্ত্রী আরো বলেন, নিজের বেদখল হয়ে যাওয়া জমি ফেরত পেতে আজারবাইজান আরো ৩০ বছর অপেক্ষা করবে না। আ’র্মেনি’য়ার উপর আ’জারবাই’জানের এই হা’ম’লাকে তুরস্ক সমর্থন করছে জানিয়ে তিনি বলেন, নিজের বেদখল হয়ে যাওয়া জমি আবারো ফেরত পেতে নাগা’র্নো-কা’রাবাখে অ’ভিযান চা’লাচ্ছে আজারবাইজান।