“পুরুষবন্ধু মেয়েদের জুতার সমান”-এমন মন্তব্য ভারত জুড়ে তোলপাড়

“পুরুষবন্ধু মেয়েদের জুতার সমান”-এমন মন্তব্য ভারত জুড়ে তোলপাড়

এবার পুরুষবন্ধুদের জুতার সঙ্গে তুলনা করায় ভারতজুড়ে ইন্টারনেটে ব্যাপক তোলপাড় শুরু হয়েছে। পুরুষদের এভাবে অ’পমান করায় এরই মধ্যে অ’ভিযোগ দা’য়ের হয়েছে অ্যাডভার্টাইসমেন্ট কাউন্সিল অব ইন্ডিয়ার কাছে। দেশটিতে বিজ্ঞাপনের ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ নিয়ামক সংস্থা কেবল আশ্বাস দিয়েই ক্ষান্ত হয়নি। তাদের আপত্তিতে বিজ্ঞাপনটি তুলে নিতে বা’ধ্য হয় একটি নামী চামড়াজাত দ্রব্য তৈরির সংস্থা। পুজা উপলক্ষে ওই সংস্থাটির বিজ্ঞাপনে পুরুষবন্ধুদের জুতার সঙ্গে তুলনা করা হয়।

তিন বান্ধবীর কথোপকথনে উঠে আসে এমন একটি বক্তব্য, যেখানে প্রতি বছর জুতা পাল্টানোর মতই বয়ফ্রেন্ড পাল্টানোর কথা আলোচনা করছে তারা। এদের মধ্যে এক বান্ধবী, সেখানে উপস্থিত তার পুরষবন্ধুকে ওই নামী ব্র্যান্ডের জুতার সঙ্গে তুলনা করছে। বোঝাতে চাইছে, এই ব্রান্ডের জুতার মতই টেঁকসই তার বয়ফ্রেন্ড। এই বিজ্ঞাপন চোখে পড়তেই প্রবল ক্ষো’ভ তৈরি হয় নেটিজেনদের মধ্যে। অ্যাডভার্টাইসমেন্ট কাউন্সিল অব ইন্ডিয়ার কাছে অ’ভিযোগ দা’য়ের করে অল বেঙ্গল মেনস ফোরাম। সোশ্যাল মিডিয়াতে ব্যাপক ক্ষো’ভের আঁচ পেয়ে প্রথমে দুঃখপ্রকাশ করে বিজ্ঞাপনদাতা সংস্থাটি। পরে বিজ্ঞাপনটি সব প্ল্যাটফর্ম থেকেই তুলে নেয় তারা।

অল বেঙ্গল মেনস ফোরামের পক্ষ থেকে নন্দিনী ভট্টাচার্যের বক্তব্য, “আমরা পুরুষ অধিকার কর্মীরা শুধু এটুকুই জানতে চাই আজ মেয়েদের নিয়ে এরকম একটি বিজ্ঞাপন বানানোর সাহস কারও হবে? তাহলে পুরুষকে নিয়ে বানানোর সাহস আসে কোথা থেকে? পুরুষ কি এতটাই অবজ্ঞার যোগ্য? আমরা কিন্তু, জবাব চাইব।” সমাজকর্মী শাশ্বতী ঘোষের বক্তব্য কিছুটা আলাদা। তার মতে, “পুরুষ-মহিলা যে কারও পক্ষেই এমন তুলনা অবমাননাকর।। এতে সরসতার কোনও উপাদান থাকতেই পারে না। লিঙ্গ নির্বিশেষে, মানুষের সঙ্গে জুতার তুলনা করাটাই অত্যন্ত অন্যায়, নিন্দনীয়।

সূত্র: জিনিউজ