নিরুপায় ভারত চীনের সাথে গোপন সমাধানে মরিয়া !

নিরুপায় ভারত চীনের সাথে গোপন সমাধানে মরিয়া !

সীমান্ত বিরোধ নিষ্পত্তির জন্য চীন ও ভারতের মধ্যে আলোচনা অব্যাহত রয়েছে। তবে এক্ষেত্রে চূড়ান্ত গোপনীয়তা বজায় রাখছে দুই দেশই। বৃহস্পতিবার ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর এ কথা জানিয়েছেন। এক ভার্চ্যুয়াল সম্মেলনে চীনের সঙ্গে আলোচনার বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, আলোচনা চলছে। এটি দুই দেশের মধ্যে একটি গোপনীয় বিষয়।

আলোচনার অগ্রগতি সম্পর্কে জানতে চাইলে ভারতীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, সীমান্ত সমস্যার আলোচনা এবং তার ফলাফল নিয়ে খুব বেশি বলতে পারব না। অবশ্যই আগে থেকে আলোচনার পরিণতি সম্পর্কে কিছু অনুমান করতে চাই না।সম্মেলনে তিব্বত প্রসঙ্গ উঠে আসলে জয়শঙ্কর বলেন, আমি মনে করি, লাদাখ পরিস্থিতির সঙ্গে সম্পর্ক নেই এমন বিষয়গুলো বিবেচনা করা উচিত নয়।

তিনি বলেন, সীমান্তে শান্তি বজায় রাখতে ১৯৯৩ সাল থেকে বেশ কয়েকটি চুক্তির পর ভারত-চীন সম্পর্কের অনেক উন্নতি হয়েছে। গত ৩০ বছর ধরে আমরা সীমান্তে শান্তিপূর্ণ সম্পর্ক গড়ে তুলেছি। তবে চুক্তি ল’ঙ্ঘনের বিষয়ে সতর্ক করে ভারতীয় মন্ত্রী বলেন, সীমান্তে শান্তি রক্ষায় যেসব চুক্তি হয়েছে, সেগুলো না মেনে চললে এবং শান্তিপূর্ণ পরিবেশ রক্ষা করা না হলে সেটাই হবে দুই দেশের মধ্যে সমস্যার প্রথম কারণ৷

এদিকে, লাদাখকে ভারত অবৈধভাবে কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে পরিণত করেছে, সম্প্রতি চীনের এমন বক্তব্যের তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছে নয়া দিল্লি। তারা বলেছে, ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে মন্তব্য করার কোনও অধিকার নেই চীনের। ভারতীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র অনুরাগ শ্রীবাস্তব এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন,

চীন জানিয়েছে, তারা লাদাখ ও অরুণাচল প্রদেশকে ভারতের অঙ্গ হিসেবে মনে করে না। এ নিয়ে আমাদের অবস্থান বরাবরই পরিষ্কার। জম্মু-কাশ্মীর ও লাদাখ ভারতের অবিচ্ছেদ্য অঙ্গ ছিল এবং থাকবে। আমরা আশা করি, ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে চীন কোনও মন্তব্য করবে না।