না’রীর সঙ্গে করম’র্দন না করায় মুসলিমকে নাগরিকত্ব দিলো না !

না’রীর সঙ্গে করম’র্দন না করায় মুসলিমকে নাগরিকত্ব দিলো না !

নারী কর্মকর্তার সঙ্গে করমর্দন না করায় এক মুসলিম চিকিৎসককে নাগরিকত্ব দেয়নি জার্মানি। ডয়েচে ভেলে জানিয়েছে, লেবাননের ৪০ বছর বয়সী এক মুসলিম চিকিৎসকের সঙ্গে ঘটেছে এ ঘটনা। এক নির্দেশনায় দেশটির আদালত বলেছেন, ওই চিকিৎসক ধর্মীয় বিধিনি’ষেধ মেনে না’রীদের সঙ্গে হাত মেলাতে অ’স্বীকৃতি জানান।

বিচারক বলেছেন, হাত মেলানোর একটি অর্থ রয়েছে। এটা কোনো সিদ্ধান্ত নেয়ার ক্ষেত্রেও গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। একে অ’পরের সঙ্গে হাত মে’লানো সামাজিক, সাংস্কৃতিক এবং আইনি জীবনে গ’ভীরভাবে তাৎপর্যপূর্ণ; যা আমাদের একসঙ্গে থাকার পথ তৈরি করে দেয়।

ওই ব্যক্তি জার্মানিতে চিকিৎসাবিদ্যা পড়েছেন এবং একটি ক্লিনিকে কর্মরত আছেন। তবে তার কিছু আ’চরণের কারণে এখনও নাগরিকত্ব পাননি।
লেবাননের ওই চিকিৎসক শুরুতে দাবি করেন, নিজের স্ত্রীকে কথা দিয়েছেন অন্য কোনো না’রীর হাত স্প’র্শ করবেন না, তাই নারী কর্মকর্তার সঙ্গে হাত মে’লানো তার পক্ষে সম্ভব নয়।

কিন্তু পরে নাগরিকত্বের আবেদন পুনর্বিবেচনার জন্য আপিল করার সময় আদালতে বলেন, আসলে কোনো পুরুষের সঙ্গেও তিনি হাত মে’লান না। কিন্তু আদালত বলেছে, কোনো পুরুষের সঙ্গেও হাত না মে’লানোর দাবি আসলে একটা কৌ’শল।