চীন সাগরে চীনের ৬ জাহাজ ও ৬০ নাবিক আটক ; উত্তেজনা চরমে !

চীন সাগরে চীনের ৬ জাহাজ ও ৬০ নাবিক আটক ; উত্তেজনা চরমে !

দক্ষিণ চীন সাগরের বিবাদপূর্ণ সমুদ্র এলাকায় অবৈধ অনুপ্রবেশের দায়ে চীনের নিবন্ধিত ছয়টি মাছ ধরার জাহাজ এবং ৬০ চীনা নাগরিককে আটক করেছে মালয়েশিয়া। শনিবার দক্ষিণপূর্ব এশিয়ার এই দেশটির সামুদ্রিক কর্তৃপক্ষ চীনা জাহাজ এবং নাগরিকদের আটক করা হয়েছে বলে জানিয়েছে।

বিশ্ব বাণিজ্যের অন্যতম সামুদ্রিক পথ দক্ষিণ চীন সাগরে যুক্তরাষ্ট্রের পাশাপাশি প্রতিবেশি অন্যান্য দেশের সঙ্গে দীর্ঘদিন ধরে চীনের উত্তেজনা চলছে। দক্ষিণ চীন সাগরের সম্পদের বেশিরভাগের মালিকানা দাবি করে চীন। এ নিয়ে প্রায়ই সেখানে উত্তেজনাকর পরিস্থিতি তৈরি হয়।

মালয়েশিয়া বলছে, ২০১৬ থেকে ২০১৯ সাল পর্যন্ত চীনের উপকূলরক্ষী এবং নৌবাহিনীর সদস্যরা অন্তত ৮৯ বার মালয়েশিয়ার সমুদ্রসীমায় অবৈধ অনুপ্রবেশ করেছে।মালয়েশিয়ার মেরিটাইম এনফোর্সমেন্ট এজেন্সি (এমএমইএ) বলছে, শুক্রবার দক্ষিণাঞ্চলীয় প্রদেশ জহুরের উপকূলীয় এলাকায় অভিযান চালিয়ে চীনের মাছ ধরার জাহাজ এবং নাবিকদের আটক করা হয়েছে।

এক বিবৃতিতে এমএমইএর আঞ্চলিক পরিচালক মোহাম্মদ জুলফাদলি নয়ন বলেছেন, অনুসন্ধানে আটককৃত জাহাজ চীনের কিনহুয়াংদো শহরে নিবন্ধিত হিসেবে পাওয়া গেছে। জাহাজগুলোতে ছয়জন ক্যাপ্টেন এবং ৫৪ নাবিক ছিলেন। যাদের প্রত্যেকের বয়স ৩১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে। আটককৃতদের প্রত্যেকেই চীনা নাগরিক।

এমএমইএ বলছে, আটকের সময় জাহাজগুলোতে কোনও মালামাল পাওয়া যায়নি। এসব জাহাজ মৌরতানিয়া যাচ্ছিল বলে ধারণা করা হয়েছিল। কিছু ভুলের কারণে জাহাজগুলো আটক করা হয়েছে।

চলতি বছরের শুরুর দিকে চীনের একটি গবেষক জাহাজ মালয়েশিয়ার দাবিকৃত দক্ষিণ চীন সাগরের বিশেষ অর্থনৈতিক এলাকায় এক মাসেরও বেশি সময় ধরে জরিপ পরিচালনা করে। বিতর্কিত জলসীমায় মালয়েশিয়ার তেল অনুসন্ধানকারী জাহাজের কাছে চীনা জাহাজের অবস্থান সেসময় ব্যাপক উত্তেজনা তৈরি করে।