এবার এক সাথে শাকিব খান, অপু বিশ্বাস ও বুবলি!!

এবার এক সাথে শাকিব খান, অপু বিশ্বাস ও বুবলি!!

গত সপ্তাহে চলচ্চিত্রের আলোচিত খবর ছিল দেশ ছেড়ে যুক্তরাষ্ট্রে স্থায়ী হচ্ছেন চিত্রনায়ক শাকিব খান। এ নিয়ে চলচ্চিত্রাঙ্গণে বেশ তোলপাড় শুরু হয়। কেন ও কি কারণে তিনি দেশ ছেড়ে বিদেশে স্থায়ী হচ্ছেন বা হবেন-এ নিয়ে চলে নানা কথাবার্তা। তবে শাকিব এসব কথাবার্তা উড়িয়ে দিয়ে বলেছেন, এমন কোনো সিদ্ধান্ত তিনি নেননি।

ফলে আপাতত এ আলোচনায় পানি ঢালা হলেও এর রেশ রয়ে গেছে। অতি সন্দেহকারিরা এত সহজে বিষয়টি নিয়ে থেমে যেতে চাচ্ছেন না। তারা মনে করছেন, কথাটি যখন উঠেছে, এর পেছনে কিছু না কিছু রহস্য রয়েছে। তারা এ রহস্যের সন্ধানে নেমেছেন এবং ঘেটেঘুটে কিছু একটা পেয়েছেনও। তাদের এ পাওয়াটা আরও চাঞ্চল্যকর এবং বিস্তৃত।

এর সাথে চিত্রনায়িকা বুবলিও জড়িয়ে পড়েছেন। ‘শ’ আদ্যাক্ষরের শাকিবের ঘনিষ্ট একজন প্রযোজক যিনি বর্তমানে আমেরিকায় রয়েছেন, তিনি নাকি তার ঘনিষ্টজনদের আঁড়েঠারে জানিয়েছেন, শাকিবের যুক্তরাষ্ট্র যাওয়ার বিষয়টি একেবারে অমূলক নয়। কারণ তিনিই নাকি শাকিবের ভিসাসহ যাবতীয় কার্যাদিতে সহায়তা করছেন।

দুয়েক মাসের মধ্যে বুবলিসহ শাকিব আমেরিকা যেতে পারেন। সেখানে বুবলিকে রেখে আসবেন। কেন বুবলিকে রেখে আসা হবে? এমন প্রশ্নে তিনি সরাসরি উত্তর না দিয়ে বলেছেন, বিষয়টি বুঝে নিতে হবে। তিনি বুবলি ও শাকিবের মধ্যকার ঘনিষ্ট সম্পর্কের কথা ইঙ্গিত করে বলেছেন, আপনাদের তা বুঝতে হবে। অপু যে হঠাৎ করে উধাও হয়ে গিয়েছিলেন এবং কেন আপনারা তাকে খুঁজে পাননি,

তা তো পরবর্তীতে জেনেছেন। বিষয়টি যদি এমন হয়, তাহলে কি অবাক হবেন? ঐ প্রযোজক বলেন, এটা ধরে নিতে পারেন, শাকিব এবং বুবলি একটা সময় যুক্তরাষ্ট্রেই স্থায়ী হবেন। বুবলিকে এ বছর আর নতুন কোনো চলচ্চিত্রে না-ও দেখা যেতে পারে। বলতে পারেন, হাতের সিনেমাগুলো শেষ করে চলচ্চিত্রকে অলিখিতভাবে গুডবাই জানিয়ে দিতে পারেন।

ইতোমধ্যে চলচ্চিত্রে যে গুঞ্জণ উঠেছে ও বিশেষ কারণে বুবলি তার হাতে থাকা সিনেমার শূটিং করতে গিয়ে শারিরীক সমস্যায় পড়েছেন, কেন পড়েছেন তা কারো বুঝতে বাকি থাকার কথা নয়। শাকিবের ঘনিষ্টজনরা এ বিষয়টি ভাল করেই জানেন। উক্ত প্রযোজক প্রশ্ন তুলে বলেছেন, বছর দুয়েক আগে যে, বুবলি শাকিবকে নিয়ে তার ফেসবুকে ‘ফ্যামিলি টাইম’ শিরোনাম

দিয়ে ছবি পোস্ট করে স্ট্যাটাস দিয়েছিলেন, আপনারা কি মনে করেন তা একেবারে ভিত্তিহীন ছিল? এর ভেতরেও কিন্তু রহস্য ছিল এবং এখনও তা রয়ে গেছে। তিনি বলেন, সময়ের সাথে সাথে আপনারা সবকিছুই স্পষ্ট দেখতে পাবেন। আপনারা ভাল করেই জানেন, চলচ্চিত্রে যা রটে, তার কোনো কিছুই একেবারে ভিত্তিহীন হয় না এবং লুকিয়েও রাখা যায় না। সময় তা প্রকাশ করে এবং ভিত্তি দেয়। সেই সময়টি মনে হয় খুব বেশি দূরে নয়। ওয়েট অ্যান্ড সি।