অবিশ্বাস্য ; সমুদ্রে ঝাঁপ দেয়ার ২ বছর পরে জীবিত উদ্ধার নারী!

অবিশ্বাস্য ; সমুদ্রে ঝাঁপ দেয়ার ২ বছর পরে জীবিত উদ্ধার নারী!

মাঝসমুদ্রের মাঝে ঝাঁ’প দিয়েছিলেন দু’বছর আর কোনও খোঁজ ছিল না তাঁর। ২ বছর পর মাঝসমুদ্রে ভা’সমান কলম্বিয়ার ওই মহিলাকে উ’দ্ধার করেন মৎস্যজীবী রোলান্ডো ভিসবাল ও তাঁর এক বন্ধু। এভাবেও বেঁচে ফেরা যায়। মহিলার ফিরে আসার কাহিনি শুনে হ’তবাক সকলেই।

৪৬ বছরের মহিলা জানান, প্রায় ২০ বছরের দা’ম্পত্য সম্পর্ক তাঁর। প্রথমবার অ’ন্তঃস’ত্ত্বা হওয়ার পর থেকেই সম্পর্ক উ’ষ্ণতা হা’রায়। দ্বিতীয়বার অ’ন্তঃস’ত্ত্বা হন। অর্থনৈতিক দিক থেকে কোনও সঙ্গতি নেই। স্বামী তাকে ম’রারধ’র করতো। তার উপর আবার দু’টি সন্তান। তাই স্বামীকে ছেড়ে চলে আসতে পারেননি কখনই।

বাধ্য হয়ে একবার পু’লিশের দ্বারস্থ হন তিনি। তবে থা’না থেকে ছাড়া পাওয়ার পর অ’ত্যাচা’র আরও বাড়ে। মা’রধ’র করে হাত–পা ভে’ঙে দেওয়া হয় মহিলার। সাংসারিক অশান্তি সহ্য করতে না পেরে সমুদ্রে ঝাঁপ দেন ওই মহিলা। মাঝে কেটে যায় দু’টি বছর। মাঝে কী হয়েছিল, তা ওই মহিলার নিজেরও অজানা।

মৎস্যজীবী রোলান্ডো ফেসবুকে ভিডিওটি শেয়ার করেন। দেখা যায়, একজন মাঝসমুদ্রে ভেসে যাচ্ছেন। তখনই মৎস্যজীবীরা তৎপরতার সঙ্গে ওই মহিলাকে উদ্ধার করেন। উদ্ধারের সময় মহিলা অ’জ্ঞান। উদ্ধারের পর মহিলা প্রথমেই বলেছেন, ‘‌আমি আবার জন্মালাম। ভগবান চাননি আমি ম’রে যা’ই। তবে গার্হস্থ্য হিং’সার কথা অ’স্বীকার করেছেন মহিলার দুই মেয়ে। অবশ্য মাকে নিজেদের কাছে ফিরিয়ে আনার উদ্যোগ নিয়েছেন মেয়েরা।