রাশিয়ার সঙ্গে রাইফেল তৈরিতে বড় চুক্তিতে ভারত, অস্বস্তিতে চীন

রাশিয়ার সঙ্গে রাইফেল তৈরিতে বড় চুক্তিতে ভারত, অস্বস্তিতে চীন

লাদাখ সীমান্ত নিয়ে ভারত-চীন উত্তেজনা চলছেই। এরই মধ্যে রাশিয়ার রাজধানী মস্কোতে সম্মলনে যোগ দিয়েছেন ভারতের প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং। সেখানেই দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক মজবুত করতে সামরিকক্ষেত্রে রাশিয়ার সঙ্গে বড়সড় চুক্তি করল ভারত। AK-47 203 রাইফেল তৈরিতে দুই দেশের মধ্যে সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত হয়েছে। এতে রাশিয়ার ঘনিষ্ঠ মিত্র চীন অস্বস্তিতে পড়েছে।

জানা গেছে, একে-৪৭ রাইফেল ক্যাটাগরির সবচেয়ে লেটেস্ট এবং অ্যাডভান্সড সংস্করণ এই AK-47 203। ইন্ডিয়ান স্মল আরম সিস্টেম ৫.৫৬x৪৫ এমএম রাইফেলের জায়গায় একে৪৭-এর এই ভার্সনটি ব্যবহার করা হবে।

ভারতীয় সেনা বাহিনীর পক্ষ থেকে ৭ লাখ ৭০ হাজার AK-47 203 প্রয়োজন আছে উল্লেখ করে আবেদন জানানো হয়েছিল। মোট চাহিদার ১০ লাখ রাশিয়া থেকে আমদানি করা হবে এবং বাকি অংশ ভারতেই প্রস্তুত করা হবে, এমনটাই জানিয়েছে রাশিয়ার স্পুটনিক নিউজ এজেন্সি।
তবে ভারত সরকারের পক্ষ থেকে রাশিয়ার সঙ্গে এই চুক্তি নিয়ে নিশ্চিতভাবে কিছু জানানো হয়নি। ভারত ও রাশিয়া যৌথ প্রয়াস ইন্দো-রাশিয়ান রাইফেল প্রাইভেট লিমিটেডের অংশ হিসেবে দেশের মাটিতেই তৈরি হবে একে-৪৭ ক্যাটাগরির সর্বশেষ এবং উন্নত রাইফেল।

রিপোর্ট অনুযায়ী, অর্ডন্যান্স ফ্যাক্টরি বোর্ড সবচেয়ে বেশি ৫০.৫ শতাংশ অংশীদার। অন্যদিকে কালাশনিকোভ গ্রুপ সেখানে ৪২ শতাংশ পাবে। রাশিয়ার সরকারের রফতানি সংস্থা রোসোবর্ন এক্সপোর্টের হাতে থাকবে ৭.৫ শতাংশ।

রাশিয়ান অস্ত্র ৭.৬২*৩৯ এমএম রাইফেল উত্তরপ্রদেশের কোরওয়া অর্ডন্যান্স ফ্যাক্টরিতে তৈরি করা হবে। ২০১৯ সালেই বিশাল এই সামরিক সরঞ্জাম তৈরির কারখানা উদ্বোধন করেছিলেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

আরও জানা গেছে, প্রযুক্তিস্থাপন এবং প্রস্তুতকারক ইউনিট নিয়ে একে৪৭ ক্যাটাগরির সাম্প্রতিকতম এই সংস্করণ প্রতি খরচ প্রায় ১,১০০ ইউএস ডলার। ১৯৯৬ সাল থেকে ইনসাস হিমালয়ের উচ্চতায় এবং প্রতিকুল পরিস্থিতিতে ব্যবহার করা হয় ইন্ডিয়ান স্মল আরম সিস্টেম।

সম্মেলনে অংশ নেওয়ার পাশাপাশি দ্বিপাক্ষিক সামরিক সম্পর্ককে আরও প্রসারিত করতে একাধিক চুক্তি নিয়ে রুশ প্রতিরক্ষামন্ত্রী সার্গেই শোইগুর সঙ্গেও আলাদা বৈঠক করেছেন ভারতের প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং।

প্রসঙ্গত, গত জুনেও মস্কো সফরে গিয়েছিলেন রাজনাথ। রাশিয়ার দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের ভিক্টরি ডে’র ৭৫ তম বর্ষপূর্তি উপলক্ষে আমন্ত্রিত ছিলেন রাজনাথ। সেখানে গিয়ে তিনি বর্ণাঢ্য সামরিক কুচকাওয়াজ প্রত্যক্ষ করেন। ওই কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠানে অংশ নিয়েছিল ভারতীয় বাহিনী। সূত্র: কলকাতা২৪