বিয়ের আসর থেকে কলেজ ছাত্রীকে তু’লে নেয়ার অ’ভিযোগ ছাত্রলীগ নেতার বি’রুদ্ধে !

বিয়ের আসর থেকে কলেজ ছাত্রীকে তু’লে নেয়ার অ’ভিযোগ ছাত্রলীগ নেতার বি’রুদ্ধে !

পিরোজপুর শহরের ৫নং ওয়ার্ড ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতির বাড়িতে জেলা ছাত্রলীগ নেতা সদলবলে উপস্থিত হয়ে বিয়ের আসর থেকে কলেজ পড়ুয়া মেয়েকে অ’পহরণের চে’ষ্টার ঘটনা ঘটেছে। খবর পেয়ে পুলিশ উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে।

কিন্তু ততক্ষণে ভণ্ডুল হয়ে গেছে ওই বিয়ের আসর। ওই ঘটনায় জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদকসহ তার সহযোগীদের বি’রুদ্ধে সদর থা’নায় মা’মলা দায়ের জন্য মেয়ের বাবা প্রস্তুতি নিছেন বলে জানা গেছে। গত শুক্রবার (১১ সেপ্টেম্বর) বিকেলে পিরোজপুর শহরের শিক্ষা অফিস সড়কে এ ঘটনা ঘটে।

পৌরসভার ৫নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি ও কনের বাবা দেলোয়ার হোসেনের অভিযোগসহ প্রত্যক্ষদর্শীদের বিবরণে জানা যায়, শুক্রবার বিকেলে দেলোয়ারের নিজ বাসভবনে মেয়ের বিয়ের আকদ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। বিকেলে জেলার ইন্দুরকানী উপজেলার বাসিন্দা (বরপক্ষ) দেলোয়ারের বাড়িতে আত্মীয়-স্বজন নিয়ে আসেন।

আকদ অনুষ্ঠান শুরুর আগেই পিরোজপুর জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক অনিরুজ্জামান অনিক কিছু স’ন্ত্রাসী নিয়ে তাদের বাড়িতে ঢুকে অনুষ্ঠান থেকে তার মেয়েকে জো’রপূর্বক অ’পহরণ করে নিয়ে যাওয়ার চে’ষ্টা করে। এ সময় মেয়ে শ্লী’লতা’হানীর চেষ্টা চালায় এবং পি’স্তল বের করে ভয় দেখায়। ওই সময় উপস্থিত আত্মীয়-স্বজন ও প্র’তিবেশীরা বাধা দেন। মেয়েকে অ’পহরণ করতে না পেরে বরপক্ষকে নানা হু’মকি দেয় তারা।

এ ঘটনার পর বরপক্ষের লোকজন ভয়ে বিয়ে বন্ধ করে বাড়িতে থেকে ফিরে যান। এ সময় অনিরুজ্জামান অনিক তার সাথে থাকা আব্দুল আলীম ও শাওনকে নিয়ে কনের বাবাকে হু’মকি দেয়। বলে, তার মেয়েকে জনৈক আবুল কালামের ছেলে আব্দুল আলীম ছাড়া অন্য কারও সাথে বিয়ে দেয়া যাবে না। যদি বিয়ে দেয়া হয় বাসর ঘরে মেয়ের স্বামীকে হ’ত্যা করে লা’শ গু’ম করা হবে এবং মেয়েকে অ’পহরণ করে নিয়ে যাওয়া হবে।

দেলোয়ার হোসেন এ ঘটনাটি পিরোজপুর পৌর মেয়রসহ আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দকে অবহিত করেন বলে অ’ভিযো’গপত্রে উল্লেখ করা হয়। এরপর খবর পেয়ে পিরোজপুর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাসহ একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে মেয়েপক্ষকে অভয় দেয়ার চেষ্টা করেন। তারপরও দেলোয়ারের পরিবারকে ভয়-ভীতি দেখানো হচ্ছে বলে জানান তিনি।

আওয়ামী লীগের ওয়ার্ড সভাপতি দেলোয়ার হোসেনে আরো জানানা, এ ঘটনায় ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক অনিক, আব্দুল আলীম ও শাওনসহ অজ্ঞাত ২০/২৫ জনকে আ’সামি করে একটি লিখিত অ’ভিযোগ পিরোজপুর সদর থানায় করা হয়েছে।

অ’ভিযোগের বিষয়ে জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক অনিরুজ্জামান অনিক মেয়ে অ’পহরণচেষ্টার অ’ভিযোগ অ’স্বীকার করেছেন। তিনি জানান, তার এক বন্ধুর জন্য পারিবারিকভাবে বিয়ের বিষয়ে কথা বলতে গিয়েছিলেন। কিন্তু তার রাজনৈতিক প্রতিপক্ষ বিষয়টি নিয়ে আমার বি’রু’দ্ধে ষ’ড়য’ন্ত্র করছে।

পিরোজপুর সদর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আব্দুস সোবাহান জানান, এ ঘটনায় একটি লিখিত অ’ভিযোগ পৌরসভার ৫নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি ও কনের বাবা দেলোয়ার হোসেন থা’নায় দিয়ে গেছেন। তবে এ বিষয়ে সদর থানার অফিসার ইনচার্জ থানায় আসলে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।