বাংলাদেশকে ২.৪ বিলিয়ন ডলার দিচ্ছে চীন; অস্থির ভারত !

বাংলাদেশকে ২.৪ বিলিয়ন ডলার দিচ্ছে চীন; অস্থির ভারত !

করোনা মহামারির ধাক্কা কাটিয়ে ধীরে ধীরে গতি ফিরে পাচ্ছে দেশের উন্নয়ন প্রকল্পগুলো। সেই ধারাবাহিকতায় চারটি প্রকল্পের জন্য ২ দশমিক ৪ বিলিয়ন ডলার ঋণ সহায়তা দিতে যাচ্ছে চীন। বিষয়টি নিয়ে বর্তমানে বেইজিংয়ের সঙ্গে আলোচনা চলছে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা।

অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগ (ইআরডি) আশা করছে, চলতি অর্থবছরে চীনের সঙ্গে হওয়া ঋণ চুক্তির ফলে ঢাকা ও আশুলিয়াকে সংযুক্ত করতে একটি এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে নির্মাণসহ চারটি প্রকল্প দ্রুতই আবার গতি ফিরে পাবে। সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, ২০১৬ সালের অক্টোবরে চীনের রাষ্ট্রপতি শি জিনপিংয়ের ঢাকা সফরের সময় ২৭টি প্রকল্পের জন্য ২০ বিলিয়ন ডলার ঋণ সহায়তার আশ্বাস দিয়েছিলেন।

যার মধ্যে চারটি নিয়ে বর্তমানে বেইজিংয়ের সঙ্গে আলোচনা চলছে। এখন পর্যন্ত এই চুক্তির সাতটি প্রকল্পের জন্য ৬ দশমিক ৬৫ বিলিয়ন ডলার ঋণ অনুমোদন হয়েছে। যার মধ্যে ঋণ বিতরণ হয়েছে ১ দশমিক ৫৪ বিলিয়ন ডলার। গত ২০১৯-২০ অর্থবছরে সর্বশেষ দুটি প্রকল্পের ঋণ চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে।

এর মধ্যে ১ হাজার ৪০২ দশমিক ৯৩ মিলিয়ন ডলার নেয়া হয়েছে ঢাকা পাওয়ার ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানির (ডিপিডিসি) ‘বিদ্যুৎ ব্যবস্থাপনা নেটওয়ার্কের সম্প্রসারণ ও শক্তিশালীকরণ’ প্রকল্পের জন্য। আর ৯৭০ দশমিক শূন্য ২ মিলিয়ন ডলার নেয়া হয়েছে বাংলাদেশের পাওয়ার গ্রিড কোম্পানির ‘পাওয়ার গ্রিড নেটওয়ার্ক শক্তিশালীকরণ’ প্রকল্পের জন্য।

প্রস্তাবনায় থাকা চারটি প্রকল্প সম্পর্কে ইআরডির এশিয়া উইংয়ের যুগ্ম-সচিব মো. শাহরিয়ার কাদের সিদ্দিকী বলেন, চীনের কাছ থেকে ঋণ প্রস্তাব প্রাথমিক অনুমোদন পেয়েছে। এখন লিখিত অনুমোদন পাওয়ার অপেক্ষা। সেটা পেলেই প্রকল্পের আনুষ্ঠানিক কার্যক্রম শুরু করা হবে। এ ধরনের প্রস্তাবনা অনুমোদন হতে সাধারণত দীর্ঘ সময় প্রয়োজন হয় জানিয়ে তিনি বলেন, ঋণ আবেদনটি চীনা কর্তৃপক্ষের কাছে ২০১৮ সালের ২৫ অক্টোবর পাঠানো হয়েছিল।