কো’য়ারেন্টাইনে থাকা না’রীর স’ঙ্গে আ’পত্তিকর অ’বস্থায় পু’লিশ

কো’য়ারেন্টাইনে থাকা না’রীর স’ঙ্গে আ’পত্তিকর অ’বস্থায় পু’লিশ

কোয়ারেন্টাইন সেন্টারের ভিতর এক মহিলার শ্লী’লতাহা’নির অ’ভিযোগকে কেন্দ্র করে পুলিশ-জনতার মধ্যে ব্যাপক সং’ঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে আসা এক মহিলার সঙ্গে গ্রাম্য পুলিশের

এক কর্মী অশালীন আচরণ করে বলে গ্রামবাসীদের অ’ভিযোগ। আর সেই অ’ভিযোগ ঘিরেই গতকাল শুক্রবার (১০ জুলাই) উত্তাল হয়ে ওঠে পুরো গ্রাম। পুলিশকে লক্ষ্য করে ছোড়া হয় পাথর এবং ভা’ঙচুর করা হয় পুলিশের গাড়ি। এসময় এক অফিসার সহ কয়েকজন পুলিশকর্মী জ’খম হয়েছেন বলে জানা যায়।

ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের দক্ষিণ ২৪ পরগনার ঢোলাহাট থানা এলাকার দিগম্বরপুরের কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে। যদিও পরবর্তীতে ওই নারী ও পুলিশকে উ’দ্ধার করা হয়েছে। জানা গেছে, ওই কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে ছিলেন ওই নারী পরিযায়ী শ্র’মিক।

সেখানে তার সঙ্গে এক গ্রাম পুলিশকে আ’পত্তিকর অবস্থায় দেখতে পান কয়েকজন। খবর পেয়ে গ্রামবাসীরা সেখানে গিয়ে দু’জনকেই আ’টকে রাখেন। ঢোলাহাট থানায় পুলিশ সদস্যেরা ঘটনাস্থলে পৌঁছলে,

গ্রামবাসীরা বি’ক্ষো’ভ দেখাতে শুরু করেন। ওই গ্রাম পুলিশ সদস্যকে ঢোলাহাট থানার হাতে তুলে দিতে অস্বীকার করেন গ্রামবাসীদের একাংশ। এসময় আচমকাই উত্তেজিত জনতা পুলিশের উপর হা’মলা করে বলে অ’ভিযোগ পুলিশের।

শুরু হয় ইটপাটকেল নি’ক্ষেপ। পুলিশও পাল্টা লা’ঠিচার্জ করে। উত্তেজিত হয়ে পুলিশের গাড়ি ভা’ঙচুর করে গ্রামবাসী। ভিড় ছত্রভঙ্গ করে ওই নারী এবং গ্রাম পুলিশকে উ’দ্ধার করে ঢোলাহাট থানার পুলিশ।

ইতিমধ্যেই এই ঘটনায় ৯ জনকে গ্রে’ফতার করা হয়েছে। যদিও গ্রামবাসীদের একাংশ দাবি করছেন, পুলিশ কর্মীদের জন্যই এখানে উ’ত্তেজনা ছড়িয়েছে। নির্বিচারে লা’ঠিচার্জ হয়েছে। অনেকে আ’হত হয়েছেন। পুলিশের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, ওই গ্রাম পুলিশের বি’রুদ্ধে বিভাগীয় ত’দন্ত শুরু হয়েছে। যদি সে দো’ষী প্রমাণিত হয়, তা হলে শা’স্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।