আবারো সীমান্তে তীব্র উত্তেজনা;ভারী অ’স্ত্রসহ ১০ হাজার সেনা মোতায়েন চীনের!

কূটনৈতিক আলোচনার মাধ্যমে ভারত ও চীনের সেনারা নিয়ন্ত্রণরেখা থেকে সরে যাওয়ার খবর পেয়েছিল বি’শ্ব। তবে ফের দুটি দেশের সীমান্তে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ার খবর পাওয়া গেছে।

এরইমধ্যে নিয়ন্ত্রণরেখায় ভারী অ’স্ত্রসহ ১০ হাজার সেনা মোতায়েন করেছে চীন।শুক্রবার বিকেলে সংবাদ সংস্থা এএনআই-এর বরাত দিয়ে এমন খবর প্রকাশ করেছে আনন্দবাজার অনলাইন।

আনন্দবাজার অনলাইনের এক প্রতিবেদনে জানানো হয়, লাদাখ থেকে অরুণাচল প্রদেশ পর্যন্ত প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখায় বাড়তি সেনা মোতায়েন করেছে চীন। এ খবরে মোদী সরকারের শীর্ষ সূত্রের কথা উল্লেখ করা হয়েছে।

খবর অনুযায়ী, হিমাচল প্রদেশ, উত্তরাখণ্ড, সিকিম ও অরুণাচল প্রদেশেও নিয়ন্ত্রণরেখার কাছে বাড়তি সেনা ও ভারী অ’স্ত্র মোতায়েন করেছে চীন। কেবল লাদাখেই ১০ হাজার সেনা মোতায়েন করেছে দেশটি।

সেনা মোতায়েনের পাশাপাশি দূরপাল্লার কা’মান ও ট্যা’ঙ্কও আনা হয়েছে।এএনআই বরাতে ওই প্র’তিবেদনে আরো জানানো হয়, ওই ভারী অ’স্ত্রশ’স্ত্র আগে সরানোর দাবি করছে ভারত।

ভারতীয় সেনাদের মতে, প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখায় উত্তেজনা কমাতে এ পদক্ষেপ নেয়া প্রয়োজন। নিয়ন্ত্রণরেখা বরাবর চীনা সেনা মোতায়েনের খবর ছড়িয়ে পড়ায় শুরু হয়েছে নতুন বি’তর্ক।

সংবাদ সংস্থা পিটিআই জানায়, সম্প্রতি উত্তরাখণ্ডের জোহর উপত্যকায় কৌশলগতভাবে গুরুত্বপূর্ণ মুন্সিয়ারি-বুগডিয়ার-মিলাম সড়ক তৈরির কাজ দ্রুত শেষ করতে হেলিকপ্টারে ভারী য’ন্ত্রপাতি পাঠানো হয়েছে।

ওই সড়কের মাধ্যমে উত্তরাখণ্ডের ওই এলাকায় প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখার কাছে থাকা সেনার পোস্টগুলোর সঙ্গে যোগাযোগ বাড়ানো যাবে।কূটনৈতিক ও সামরিক আলোচনার মাধ্যমে লাদাখে চীনের সঙ্গে উত্তেজনা কমানোর চেষ্টা করছে ভারত।

গতকালও দুই দেশের সেনার ডিভিশনাল ক’মান্ডার স্তরে বৈঠক হয়েছে। তবে লাদাখে প্রকৃত অবস্থা সরকার স্পষ্ট করছে না বলে মনে করছেন বিরোধীরা।