লগ ডাউন চলছে ; ম’দের দোকানে দীর্ঘ লাইন !

লগ ডাউন চলছে ; ম’দের দোকানে দীর্ঘ লাইন !

ভারতে সব রাজ্যেই ম’দের দোকানগুলো খুলে দেওয়ার অনুমতি দিয়েছে মোদি সরকার। এরপর আজ দেশজুড়েই খোলা হয় ম’দের দোকানগুলো। আর দোকান খুলতে না খুলতেই শুরু হয়ে যায় হুলস্থুল কা’ণ্ড। ম’দ প্রত্যাশীদের চাপে কোনো কোনো জায়গার দোকান বন্ধ করে দিতে বাধ্য হন মালিকরা। ভিড় সামাল দিতে হি’মশিম খেতে হয় পুলিশকেও।

ভারতের প্রভাবশালী আনন্দবাজারের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সোমবার সকাল সাড়ে ৯টায় কলকাতা কালীঘাট দমকলের পাশে ম’দের দোকানের শাটার খোলার আগেই দোকানের সামনে ফুটপাতে ৫০০ মানুষের লম্বা লাইন লেগে যায়।

প্রত্যেকের হাতে ছিল বিভিন্ন মাপের থলে। কয়েক মিনিট পরেই দোকানের তালা খুলে শাটার অর্ধেক তুললেন দোকানের এক কর্মী। সঙ্গে সঙ্গে ৫০০-৬০০ মানুষের লাইনটা এগিয়ে গেল। এক জনের ঘাড়ে হুমড়ি খেয়ে পড়ছেন অন্যজন।

সবাই চেষ্টা করছেন দোকানের কাউন্টারের কাছে আগে পৌঁছতে। আর তা নিয়েই শুরু হয় ঠেলাঠেলি ও বচসা। সেই ছবি দেখলে কেউ বলবে না, দেশ জুড়ে লকডাউন চলছে। কিছুক্ষণের মধ্যে সেখানে পুলিশ আসে।

ওই ভিড় সামাল দিতে নাজেহাল হন তারাও। রীতিমতো লাঠি নিয়ে পুলিশ তাড়া করে উৎসাহী সুরাপায়ীদের। তাতেও ভাটা পড়েনি উৎসাহে। একদিকে তাড়া করলে সুরাপায়ীরা অন্যদিক দিয়ে তারা এসে হাজির হচ্ছেন দোকানের সামনে। শেষ পর্যন্ত পরিস্থিতি বেগতিক দেখে, পুলিশের নির্দেশে দোকান বন্ধ করে দেন মালিক।

শুধু কলকাতা নয়, কর্নাটক, দিল্লি, ছত্তিশগড়সহ ভারতের অধিকাংশ রাজ্যের ম’দের দোকানের চিত্র ছিল অনেকটা একই রকম। অনেক জায়গায় গভীর রাত থেকে ম’দের দোকানের সামনে লাইন দিতে দেখা গেছে সুরাপায়ীদের। মদখোরদের ভীড় নিয়ন্ত্রণে আনতে দিল্লিতে লাঠি চালাতে হয় পুলিশকে।

তবে এর উল্টো চিত্রও দেখা গেছে। কেন্দ্রীয় সরকার অনুমতি দিলেও পাঞ্জাব ও কেরালার মতো কয়েকটি রাজ্য ম’দের দোকান খুলবে না বলে জানিয়েছে।