ভর্তি নেয়নি হাসপাতাল, গেটের সামনেই সন্তান প্রসব!

প্রসব বেদনা নিয়ে গাইবান্ধার সাদুল্লাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে যান রাশেদা বেগম নামে এক নারী। কিন্তু তাকে ভর্তি নেননি চিকিৎসকরা। পরে হাসপাতালের গেটের সামনেই কন্যা সন্তান প্রসব করেন তিনি।

সোমবার সন্ধ্যায় এ ঘটনা ঘটে। প্রসূতি রাশেদা উপজেলার দামোদরপুর ইউপির জামুডাঙ্গা গ্রামের বাদশা মিয়ার স্ত্রী। তার বয়স ৫০ বছর।

স্বজনরা জানান, সোমবার বিকেলে বাড়িতে রাশেদার প্রসব বেদনা উঠলে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হয়। তবে করোনাভাইরাসের কারণে তাকে ভর্তি নেননি চিকিৎসকরা।

বিষয়টি নিয়ে চিকিৎসকদের একাধিকবার অনুরোধ করলেও শোনেননি। উপায় না পেয়ে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে বের হয়ে আসার গেট সংলগ্ন সড়কে স্থানীয় নারীদের সহযোগিতায় কন্যা সন্তান প্রসব করেন রাশেদা।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক রিপন কুমার বর্মণ জানান, অধিক বয়সী গর্ভবতীদের প্রসবের সময় অনেক বেশি রক্তক্ষরণ হয়। তাই রাশেদাকে ভর্তি করে নেয়া হয়নি।