ঠাণ্ডা-কাশির পর আবার পাওয়া গেল করোনার নতুন উপসর্গ

ঠাণ্ডা-কাশির পর আবার পাওয়া গেল করোনার নতুন উপসর্গ

এতদিন করোনা আক্রান্ত রোগীরা ঠাণ্ডা-কাশি, জ্বর ও গলাব্যথা নিয়ে চিকিৎসকের কাছে গেলেও এখন দেখা যাচ্ছে আরও অনেক নতুন উপসর্গ। করোনার নতুন উপসর্গ হিসেবে দেখা দিয়েছে পেশী ও গাঁটে গাঁটে ব্যথা।

আমেরিকার ‘সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোল ও প্রিভেনশন’ জানিয়েছে। উপসর্গের হার সম্পর্কে তারা জানান, জ্বর থাকে ৮৭.৯ শতাংশ রোগীর, শুকনো কাশি ৬৭.৭ শতাংশের, ক্লান্তি ৩৮.১ শতাংশ, শ্বাসকষ্ট ১৮.৬ শতাংশ এবং পেশী ও গাঁটে ব্যথা (মায়ালজিয়া ও আর্থ্রালজিয়া) থাকে ১৪.৮ শতাংশ রোগীর।

চীনের ৫৫ হাজার ৯২৪ জন রোগীর ওপর সমীক্ষা চালিয়ে উপসর্গের এ ক্রম তৈরি করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। তালিকার এরপর আছে গলা ব্যথা ১৩.৯ শতাংশ, মাথা ব্যথা ১৩.৬ শতাংশ, কাঁপুনি ১১.৪ শতাংশ।

অবশ্য পেশী ও গাঁটে ব্যথা মানেই করোনা হয়েছে নয়। ঋতু পরিবর্তনের সময় জ্বর-সর্দি, ফ্লুতে আক্রান্ত হতে পারেন অনেকে। এ সময় হতে পারে কমবেশি পেশী ও গাঁটে ব্যথা। বিভিন্ন গবেষণায় বিজ্ঞানীরা প্রমাণ পেয়েছেন,

রোগীর অবস্থা কতটা জটিল হবে তা বলে দেবে তার উপসর্গ। ব্যথা যত মারাত্মক হয় তত আশঙ্কা বাড়ে ফুসফুসের জটিলতম সমস্যা অ্যাকিউট রেসপিরেটরি ডিসট্রেস সিনড্রোম বা এআরডিএসের।