এবার তাদের বিরুদ্ধে মা’মলা!

এবার তাদের বিরুদ্ধে মা’মলা!

বাগেরহাটের শরণখোলায় এক গৃহবধূকে নি’র্যাতনের ঘটনায় সেই এনজিও পরিচালকসহ তার দুই সহযোগীর বিরুদ্ধে মা’মলা হয়েছে। উপজেলার দক্ষিণ আমড়াগাছিয়া গ্রামের বাসিন্দা ব্যবসায়ী মো. জিহাদুল ইসলাম ছাব্বিরের স্ত্রী মারুফা বেগম বাদী হয়ে বুধবার রাতে শরণখোলা থানায় মা’মলাটি করেন ।

ওই মা’মলায় এনজিও জোয়ারের পরিচালক আ. রহমান আকাশ, ও তার সহযোগী আমড়াগাছিয়া গ্রামের বাসিন্দা কাতার প্রবাসী মো. সোহাগ মৃধার স্ত্রী সুমি বেগম এবং দক্ষিণ তাফালবাড়ি গ্রামের বাসিন্দা শ্রী তুষার মিত্রের মেয়ে সূবর্ণা মিত্রকে আসামি করা হয়েছে।

মারুফা বলেন, আমি এক সময় ওই এনজিও কর্মকর্তার অধীনে চাকরি করতাম। বেতন-ভাতা পরিশোধ না করাসহ তার বিভিন্ন অনিয়মের বিষয়ে কয়েক মাস আগে আমি তার বিরুদ্ধে ইউএনও’র কাছে একটি অ’ভিযোগ করি।

ওই ঘটনার জেরে গত ১ মে দুপুরে বাসায় ঢুকে এনজিও কর্মকর্তা আকাশ তার সহযোগী সুমি ও সূবর্ণা বাসায় আমাকে একা পেয়ে চরম নি’র্যাতন করলে মাথা কেটে যায় এবং আমি জ্ঞান হারিয়ে ফেলি।

এ সময় আমার স্বামী বাসায় না থাকায় প্রতিবেশীরা আমাকে উদ্ধার করে ওই দিন সন্ধ্যায় শরণখোলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। হা’মলাকারীদের শাস্তির জন্য আমি আইনের আশ্রয় নিয়েছি ।

এ বিষয়ে শরণখোলা থানার ওসি এসকে আব্দুল্লাহ আল-সাইদ জানান, ওই গৃহবধূর অ’ভিযোগটি আমলে নিয়ে মামলা করা হয়েছে। আসামিদের গ্রেফতারে অ’ভিযান অব্যাহত রয়েছে।