ইটভাটায় আ’পত্তিকর অবস্থায় ধরা প্রেমিক প্রেমিকা ! অতঃপর ……

প’রকীয়া প্রেমিকের সাথে আ’পত্তিকর অবস্থায় হাতেনাতে ধরে সহযোগীদের নিয়ে পি’টিয়ে হ’ত্যা করা হয়েছে আবু তাহের (২৬) নামের এক ইটভাটার শ্রমিককে। বরিশালের বানারীপাড়া উপজেলার বাইশারী ইউনিয়নের রুস্তুম আলী মোল্লার ইটের ভাটায় হ’ত্যার এ ঘটনাটি ঘটে। এ ঘটনায় থানায় মামলা দায়েরের পর চারজনকে গ্রে’ফতার করে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

ঘটনাস্থল পরিদর্শণ করে শনিবার রাতে সহকারী জেলা পুলিশ সুপার (বাকেরগঞ্জ, উজিরপুর ও বানারীপাড়া সার্কেল) আনোয়ার সাঈদ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, নি’হত আবু তাহের সাতক্ষীরা জেলার শ্যামনগর থানার চকবড়া গ্রামের মৃ’ত মোশারফ গাজীর ছেলে। তিনি দীর্ঘদিন থেকে সাতক্ষীরার লেবার স’র্দার আনছার আলীর অধীনে বানারীপাড়ার বাইশারী গ্রামের রুস্তুম আলী মোল্লার ইটের ভাটায় শ্রমিক হিসেবে কাজ করে আসছিলেন।

জানা গেছে, ওই ইটভাটার অন্য গ্রুপের লেবার সর্দার সাইফুল ইসলামের শ্রমিক সাতক্ষীরার একই এলাকার বাসিন্দা নজরুল ইসলাম গাজীর স্ত্রীর সাথে আবু তাহেরের প’রকীয়া প্রেমের সর্ম্পক চলে আসছিলো। শুক্রবার রাতে নজরুল ইসলামের স্ত্রী ইট ভাটার রাঁধুনি রোজিনা প্রকৃতির ডাকের কথা বলে ইটের ভাটার পাশে বাথরুমে যায়। কিছুক্ষণ পরে তার স্বামী নজরুল ইসলাম বাথরুমের পাশে গিয়ে তার স্ত্রীকে আবু তাহেরের সাথে আ’পত্তিকর অবস্থায় দেখতে পান।

এ সময় নজরুল ইসলাম ডাকচিৎকার দিয়ে তার গ্রুপের অন্যান্য শ্রমিকদের জড়ো করে আবু তাহেরকে পি’টিয়ে অ’চেতন করে। পরবর্তীতে ওই রাতেই তাকে উদ্ধার করে পাশ্ববর্তী পিরোজপুরের স্বরূপকাঠি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক আবু তাহেরকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। খবর পেয়ে স্বরূপকাঠি থানা পুলিশ হাসপাতাল থেকে নি’হতের লা’শ উ’দ্ধার করে ময়নাত’দন্তের জন্য ম’র্গে পাঠিয়ে দেন।

বানারীপাড়া থানা পুলিশ ওই রাতেই নি’হত আবু তাহেরের প’রকীয়া প্রেমিকা রোজিনা বেগম, তার স্বামী নজরুল ইসলাম গাজী, শ্রমিক মিলন মোল্লা, শামীম সরদার ও আনছার আলীকে আটক করে। এ ঘটনায় নি’হতের ভাই একই ইটভাটার শ্রমিক আবু হানিফ বানারীপাড়া থানায় হ’ত্যা মা’মলা দায়ের করেন।