হাত দিয়ে টান দিলেই উঠে যাচ্ছে রাস্তার কার্পেটিং

হা’তুড়ি দিয়ে পেটালেও যে কার্পেটিং উঠে যাওয়ার কথা নয় তা উঠে যাচ্ছে হাত দিয়ে টান দিলেই। ঘটনাটি নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁও উপজে’লা শান্তির বাজার থেকে অলিপুরা পর্যন্ত ১ হাজার ২১০ মিটার সড়ক মেরামতের কাজের। ইতিমধ্যে হাত দিয়ে কার্পেটিং উঠে যাওয়ার একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে।

স্থানীয়দের সূত্রে জানা গেছে, উপজে’লা শান্তির বাজার থেকে অলিপুরা পর্যন্ত ১ হাজার ২১০ মিটার সড়ক মেরামতের কাজ পায় এম আর কনস্ট্রাকশন নামের একটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান। বন্যা ও দুর্যোগে ক্ষ’তিগ্রস্থ পলি­ সড়ক ও অবকাঠামো মেরামত এবং পুনর্বাসন প্রকল্পের অধীন এই কাজটি তাদের দেওয়া হয় ৬ কোটি ৭৫ লাখ টাকায়।

সূত্র বলছে, কার্যাদেশ অনুযায়ী ১ হাজার ২১০ মিটার সড়ক ৪০ মিলিমিটার কার্পেটিং করার কথা ছিল। কিন্তু এই আদেশ অমান্য করে ৩০ মিলিমিটার করেই কার্পেটিং করে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান। এর আগেও নিম্নমানের নির্মাণ সামগ্রী দিয়ে কাজ করা হচ্ছে, এমন অভিযোগ বারবার তোলা হলেও সংশ্লিষ্ট দপ্তর থেকে কোনো রকম ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়নি বলে দাবি স্থানীয় জনপ্রতিনিধিসহ সাধারণ মানুষের।

এদিকে গত রবিবার স্থানীয়রা দেখতে পান সড়কটিতে নিম্নমাণের সামগ্রী দিয়ে নির্মাণ কাজ করছে। কার্পেটিং হাত দিয়ে টান দিলেই উঠে যাচ্ছে। এমন পরিস্থিতিতে বারদি ও সনমান্দি ইউনিয়নের জনপ্রতিনিধি ও এলাকাবাসী সড়কের ও’পরই বি’ক্ষো’ভ শুরু করেন। পরে সনমান্দি ইউপি চেয়ারম্যান জাহিদ হাসান অন্যান্য জনপ্রতিনিধিদের সাথে নিয়ে ঘটনাস্থালে আসেন এবং এলজিইডির উপজে’লা প্রকৌশলী সহিদুল ইসলামকে ঘটনাস্থলে ডাকেন। তিনি এসে এর সত্যতা পেয়ে নির্মাণ কাজ বন্ধ রাখার নির্দেশ দেন।

তবে, ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান এমআর কনস্ট্রাকশনের প্রকৌশলী নাজমুল হক বলেন, সকালে আমর সাইটে আসার আগে শ্রমিকেরা ভুল কর কার্পেটিংয়ের কাজ (পুরু) কম করেছে। আমরা পুনরায় কাজটি করে দেব।