মোদি বাংলাদেশে পা রাখলে কা’ফন পরে মাঠে নামার হুঁ’শিয়ারি

ভারতে নাগরিকত্ব আইনের প্র’তিবাদ করায় মু’সলিমদের চড়াও হয়েছে উ’গ্র নিন্দুত্ববা’দীরা। বিজেপি স’রকারের ছত্রছায়ায় ভারতের বাজধানী দিল্লিতে মু’সলিমদের ও’পর চা’লানো হচ্ছে চমর সহিং’সতা। দিল্লিতে মু’সলিমদের ও’পর চলমান এই সহিং’সতার বি’রুদ্ধে আজ জুমার নামাজের পরে বায়তুল মোকাররমে বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করেছে ইসলামী দলগুলো।

বি’ক্ষো’ভ মিছিল পূর্ব সমাবেশ থেকে হুঁ’শিয়ারি উচ্চারণ করেছেন ইসলামী দলগুলোর নেতাকর্মীরা। বক্তারা বলেছেন, মু’সলমানদের উপর নি’র্যাতনকারী মোদিকে বাংলাদেশের মাটিতে পা রাখতে দেওয়া হবে না। যেকোন মূল্যে মোদিকে প্রতিহত করা হবে।

বক্তারা আরও বলেন, মোদি যদি বাংলাদেশে আসে তাহলে তাকে স্বাগত জানাতে আমরা কাফনের কাপড় পরে বায়তুল মোকাররম থেকে বিমানবন্দর পর্যন্ত দাঁড়াব। মোদিকে স্বাগত জানাতে স’রকারের প্রয়োজন নেই। আমরাই যথেষ্ট। হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের সহ সভাপতি ও ঢাকা মহানগরীর আমির আল্লামা নূর হোসাইন কাসেমীর নেতৃত্বে বি’ক্ষো’ভ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন খেলাফত মজলিসের সভাপতি আল্লামা আব্দুল কাদের, যুগ্ম মহাস’চিব মাওলানা আহমদ আলী কাসেমী।

মাওলানা কাসেমী বলেন, ভারতের উ’গ্র হিন্দুত্ববাদি গোষ্ঠি সে দেশের সা’ম্প্রদায়িক স’রকারের পৃষ্ঠপোষকতায় মু’সলমানদের উপর জু’লুম নি’র্যাতনের যে নীল নকশা তৈরি করেছে, তার বি’রুদ্ধে শান্তিকামী জনতা ও আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় ক’ঠোর প্রতিরোধ গড়ে না তুললে বিশ্বশান্তির জন্য বিপর্যয় বয়ে আনবে।

এ সময় উপস্থিত অন্যান্য সমমনা দলগুলো হচ্ছে- জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশ, খেলাফত মজলিস, বাংলাদেশ খেলাফত মজলিস, বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলন, ইসলামী ঐক্য আন্দোলন এবং বাংলাদেশ মু’সলিম লীগ।উল্লেখ্য, ভারতের রাজধানী দিল্লিতে মু’সলমানদের ও’পর চা’লানো সহিং’সতায় লা’শের মিছিল বেড়েই চলেছে। উত্তর-পূর্ব দিল্লির দা’ঙ্গাকবলিত এলাকা থেকে একের পর এক লা’শ বেরিয়ে আসছে। বৃহস্পতিবার পর্যন্ত ৩৮ জনের মৃ’ত্যুর খবর পাওয়া গেছে। আ’হত হয়েছেন দুই শতাধিক।