মুজিববর্ষে গান্ধী পরিবারের কেউ নেই কেন?

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকীর অনুষ্ঠান হচ্ছে। অনুষ্ঠানে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, ভুটানের প্রধানমন্ত্রী, নেপালের রাষ্ট্রপ্রধান, জাতিসংঘের মহাসচিবসহ অনেক গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিরা ভিডিও বার্তা দিয়েছেন। কিন্তু একাত্তরে মুক্তিযুদ্ধে বাংলাদেশকে সহযোগিতার ক্ষেত্রে যার নামটি জাতির পিতা সবচেয়ে বেশিবার উচ্চারণ করেছেন তিনি হলেন, প্রয়াত ইন্ধিরা গান্ধী। ইন্ধিরা গান্ধী সে সময় ভারতের প্রধানমন্ত্রী ছিলেন।

প্রধানমন্ত্রী থেকে তিনি একাত্তরে মুক্তিযুদ্ধে যেভাবে বাংলাদেশকে সহযোগিতা করেছিলেন তা অবিস্মরণীয় এবং অকল্পনীয়। এ কারণেই বাংলাদেশ সবসময় ইন্ধিরা গান্ধী এবং তার পরিবারকে শ্রদ্ধার চোখে স্বরণ করে।

উল্লেখ্য যে ১৯৭২ এর ১৭ মার্চ ইন্ধিরা গান্ধী জাতির পিতার জন্মদিনে বাংরাদেশে এসেছিলেন। তখনই তিনি সৈন্য প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছিলেন। অথচ আজ মুজিবশতবার্ষিকীতে যারা ভিডিও বার্তা দিচ্ছেন সেখানে কংগ্রেসের কেউ নেই। কেন তারা নেই সেই প্রশ্নটা করা যেতেই পারে। কারণ ইন্ধিরা গান্ধীর দৌহিত্র প্রিয়াংকা, রাহুল গান্ধী এমনকি সোনিয়া গান্ধীও রাজনীতিতে সক্রিয়া। তাছাড়া সাবেক রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জির সংসদে ভাষণ দেওয়ার কথা ছিল। তারও একটা ভিডিও বার্তা নেওয়া যেত। মুজিবশতবর্ষের অনুষ্ঠান গান্ধী পরিবারকে বাদ দিয়ে কি পূর্ণতা পায়?