বেরিয়ে এলো থলের বিড়াল:শাবনূর ম’দ্যপ, একাধিক পুরুষের সঙ্গে স’ম্পর্ক

শাবনূর দাবি করেছেন তার স্বামী ম’দ্যপ, তাকে মা’রধর করে। কিন্তু স্বামী অনীকের দাবি, তিনিই শাবনূরকে ম’দ্যপ অবস্থায় পেয়েছেন। বললেন, ‘একজন মানুষ ও স্বামী হিসেবে এসব তো মেনে নেওয়া যায় না। তাই দূরে থেকেছি। শাবনূরকে বাংলাদেশে স্বনামধন্য, জনপ্রিয় এবং অত্যন্ত ভালো মানের অভিনয়শিল্পী হিসেবে শ্রদ্ধা করি।

সেভাবেই তাঁর সঙ্গে আমার পরিচয়। আমার সন্তানের মা হিসেবে, আমার সাবেক স্ত্রী হিসেবেও তিনি সম্মানের দাবিদার। কিন্তু তাই বলে আমার সম্পর্কে যা খুশি তা-ই মিডিয়াকে বলবে-এটা তো মানা যায় না!’অনীক বলেন, ‘আমাকে মা’দকা’স’ক্ত বলা হলো। সবার উদ্দেশে বলতে চাই, আমি প্রতিদিন সকাল ছয়টায় ঘুম থেকে উঠি।

এরপর দুই-তিন ঘণ্টা জিমে ওয়ার্কআউট করি। অনেক বেশি স্বাস্থ্যসচেতন মানুষ। আমি অনেক বডি বিল্ডিং প্রতিযোগিতায় বিচারক হিসেবেও থাকি। একজন স্বাস্থ্যসচেতন মানুষ কীভাবে মা’দকা’স’ক্ত, সেটা সবার কাছে জানতে চাই। আমি চ্যালেঞ্জ করে বলছি, আমার র’ক্ত পরীক্ষা করা হোক।

যদি মা’দকাস’ক্তের কোনো নমুনা পাওয়া যায়, তাহলে যা শাস্তি প্রাপ্য তা–ই মেনে নেব। শাবনূরের র’ক্তও পরীক্ষা করা হোক। আমি আসলে এসব মেনে নিতে পারছি না। আমার হাতে কোনো নোটিশ এল না, টেলিভিশন আর পত্রিকায় দেখছি, সন্তানের ভরণপোষণও দিই না!

সবার কাছে প্রশ্ন রাখছি, সন্তানের ভরণপোষণ দেওয়ার হিসাব কি আমাকে রাখতে হবে? আমার ছেলে অস্ট্রেলিয়ায় থাকুক কিংবা বাংলাদেশে থাকুক—সব সময় বাবা হিসেবে যাবতীয় দায়িত্ব পালন করেছি। কিন্তু আফসোস, দেড় বছর ধরে সন্তানকে দেখার

সুযোগ থেকেও আমি ব’ঞ্চিত।’অনীক বলেন, ‘আড়াই বছর আগে একবার হঠাৎ করে কোনো কথা নেই বার্তা নেই, শরীফ নামের একজন লোকের সঙ্গে মালয়েশিয়া চলে যায়। আরো অনেক কাণ্ড আছে তার। এসব নিয়ে আমি আর কথা বলতে চাচ্ছি না।